আজ ১১ই মাঘ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ | ২৫শে জানুয়ারি, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ | রাত ৮:৪৮

  • বাংলা English
সদ্য :

☉ ব্যবসায়ীর ওপর ০০৭ কিশোর গ্যাংয়ের হামলা ॥ টাকা ছিনিয়ে নেয়ার অভিযোগ☉ মামলা তুলে না নেয়ায় যুবলীগ নেতার হাত-পা ভাঙ্গার অভিযোগ☉ সড়কের ড্রেনেজ পাইপে নিয়ন্ত্রন হারিয়ে সৌদী প্রবাসী তরুন যুবকের মৃত্যু☉ পদোন্নতির দাবীতে ভূমি অফিসার্স কল্যাণ সমিতির কালোব্যাজ ধারণ☉ জমিজমার বিরোধে বসত বাড়িতে হামলা ॥ মা-ছেলেকে পিটিয়ে ও কুপিয়ে জখম☉ চোঁখ বেঁধে নির্যাতনের অভিযোগ! যুবলীগ নেতার কবজি কাঁটা চাঞ্চল্যকর মামলার আসামী গ্রেপ্তার☉ দস্যুদের ধারালো অস্ত্রের কোপে প্রবাসির স্ত্রী জখম ॥ স্বর্ণ ও টাকা লুট☉ রাত পোহালেই শংকার ভোট ॥ চারটিতেই দ্বিমুখী লড়াই☉ স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থীর নির্বাচনী প্রচারণায় আ’লীগ প্রার্র্থীর বাঁধা ॥ নারী কর্মীদের শ্লীলতাহানির অভিযোগ☉ নির্বাচনী প্রচারণার জাপা চেয়ারম্যান প্রার্থীর কর্মীদের ওপর হামলা, মাইক ভাংচুর ও ছিনিয়ে নেয়ার অভিযোগ

স্টাফ রিপোর্টার : পিরোজপুরের মঠবাড়িয়ায় ইমরান হাওলাদার (২২) নামের এক ব্যবসায়ীর ওপর কিশোর গ্যাংয়ের হামলা ও টাকা ছিনিয়ে নেয়ার অভিযোগ উঠেছে। উপজেলার মিরুখালী বাজারে সোমবার রাতে এ ঘটনা ঘটে।
আহত ব্যবসায়ী ইমরান জানান, মিরুখালী ইউনিয়নের ওয়াহেদাবাদ গ্রামের খলিলুর রহমান হাওলাদারের ছেলে ইমরান হাওলাদার দীর্ঘদিন ধরে ব্যবসা করে আসছেন। সোমাবার (২৪ জানুয়ারী) রাত সাড়ে দশটার দিকে তিনি শ্রমিকদের বেতন দেবার জন্য স্থানীয় ঠিকাদার আহমেদ আলিমের কাছ থেকে দুই লাখ টাকা নিয়ে নিজ বাসায় রওয়ানা হন। পথিমধ্যে মিরুখালী বাজারের স্বঘোষিত ০০৭ নামের কিশোর গ্যাংয়ের লিডার রাকিবের নেতৃত্বে তারিকুল, নাফিন, হাফিজুর, মিজানসহ একদল কিশোর ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে গুরুতর জখম করে তার সাথে থাকা দুই লাখ টাকা ছিনিয়ে নেয়। তাকে রাস্তায় পরে থাকতে দেখে স্থানীয়রা উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লে¬ক্সে ভর্তি করেন।
মঠবাড়িয়া থানার অফিসার ইনচার্জ মুহা. নুরুল ইসলাম বাদল জানান, ঘটনাটি শুনেছি। অভিযোগ পেলে তদন্ত করে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

স্টাফ রিপোর্টার: শরণখোলায় মামলা তুলে না নেয়ায় মোঃ আবু ছালে (৪০) নামের এক যুবলীগ নেতাকে পিটিয়ে হাত-পা ভেঙ্গে দিয়েছে আসামি পক্ষ। শনিবার (২২ জানুয়ারি) রাত ৮টার দিকে উপজেলার সাউথখালী ইউনিয়নের বগী বাজারে এ ঘটনা ঘটে। গুরুতর আহত যুবলীগ নেতা আবু ছালেকে শরণখোলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে রাতেই খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। আহত আবু ছালে বগী গ্রামের মোঃ আঃ রহমান খলিফার ছেলে এবং বগী বন্দর যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক ও বগী বাজারের একজন মৎস্য ব্যবসায়ী।
আবু ছালের মা নুরুন্নাহার বেগম বলেন, দেড় মাস আগে আমার ছেলেকে অন্যায় ভাবে মারধর করে স্থানীয় ইউপি সদস্য রিয়াদুল পঞ্চায়েতের ভাই মোঃ আসাদুল পঞ্চায়েত। এরপর শালিস বৈঠক বসার কথা বললেও তা আর হয়নি। পরে আমার ছেলে শরণখোলা থানায় ওদের বিরুদ্ধে একটি মামলা দায়ের করে। সেই মামলা তুলে নিতে শনিবার রাত ৮টার দিকে আসাদুল পঞ্চায়েত, ফারুক খাঁন ও পলাশ মিলে আমার ছেলের মৎস্য আড়তে হামলা চালিয়ে তার হাত-পা ভেঙে দেয়। পরে খবর শুনে গিয়ে দেখি ছালে অজ্ঞান অবস্থায় দোকানের সামনে পরে আছে। তখন স্থানীয়রা উদ্ধার করে ছালেকে হাসপাতালে নিয়ে আসে। তবে, সংশ্লিষ্ট ইউপি সদস্য মোঃ রিয়াদুল পঞ্চায়েত বলেন, একটি কম্পিউটারের ডিক্স নিয়ে প্রথমে দুই পক্ষের মধ্যে ঝগড়া হয়। এসময় আসাদুলকে মারধর করে হানিফসহ কয়েকজন। পরে আসাদুলসহ ১০/১২ জন এক হয়ে বগী গিয়ে ছালেকে পেয়ে মারধর করে।
শরণখোলা থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ সাইদুর রহমান বলেন, এ ঘটনায় একটি মামলা হয়েছে। আসামি ধরতে পুলিশের অভিযান অব্যহত রয়েছে।

স্টাফ রিপোর্টার: পিরোজপুরের মঠবাড়িয়া বুধবার (১৯ জানুয়ারী) রাতে মঠবাড়িয়া-সাপলেজা ব্যস্ততম সড়কে রাখা বালুর ড্রেজারের পাইপ থেকে মটরসাইকেল নিয়ন্ত্রন হারিয়ে চালক মোঃ মিরাজ হোসেন (৩২) নামে এক সৌদী প্রবাসী তরুন যুবকের মর্মান্তিক মৃত্যু হয়েছে। সদ্য বিদেশ প্রত্যাগত মিরাজ উপজেলার আমড়াগাছিয়া ইউনিয়নের দক্ষিণ সোনাখালী গ্রামের মোঃ বাদল হাওলাদারের ছেলে। সম্প্রতি বিয়ে করা মিরাজের অকাল মৃত্যুতে এলাকায় শোকের ছায়া নেমে এসেছে।
জানাযায়, মটরসাইকেল যোগে মিরাজ স্থানীয় সাপলেজা বাজার থেকে দক্ষিণ সোনাখালী গ্রামের বাড়ি ফেরার পথে রক্ষাতলা নামক স্থানে রাস্তার উপর দিয়ে নেয়া বালুর ড্রেজারের পাইপে ধাক্কা খেয়ে মটর সাইকেলসহ ছিটকে পরে চালক মিরাজ ও তার ফুফাত ভাই বেল্লাল হোসেন (২০) গুরুতর আহত হয়। স্থানীয়রা উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মিরাজকে মৃত ঘোষণা করেন।
আহত বেল্লাল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে। স্থানীয়রা জানান, রাস্তার উপর অবৈধ বালুর ড্রেজারের পাইপ রাখায় ওই স্থানে একইদিন একাধিক দূর্ঘটনা ঘটে। জয় নামের অপর মটর সাইকেল চালক শহরের ডাঃ রমেশের ক্লিনিকে চিকিৎসাধীন রয়েছে। রাতে সড়কে পাইপ রাখা স্থানে আলোর ব্যবস্থা না থাকায় অন্ধকারে এ দূর্ঘটনাটি ঘটেছে।
মঠবাড়িয়া থানার অফিসার ইনচার্জ মুহা. নুরুল ইসলাম বাদল বলেন- স্বজনদের কোন অভিযোগ না থাকায় এবং লাশের ময়না তদন্ত করবে না মর্মে আবেদন করায় পরিবারের কাছে লাশ হস্তান্তর করা হয়েছে।

স্টাফ রিপোর্টার: মঠবাড়িয়ায় ভূমি সহকারী কর্মকর্তা ও ভূমি উপ-সহকারী কর্মকর্তা গনের উন্নীত বেতন স্কেলের স্থগিতাদেশ প্রত্যাহার পূর্বক জিও জারির তারিখ থেকে বকেয়া বেতন-ভাতা পরিশোধের দাবিতে এবং ভূমি সহকারী কর্মকর্তা ও ভূমি উপ-সহকারী কর্মকর্তা নিয়োগ বিধিমালা-২০২১ অনুযায়ী নিয়োগ ও পদোন্নতি প্রদানের দাবীতে কালো ব্যাজ ধারণ কর্মসূচীর উপর প্রেস কনফারেন্স অনুষ্ঠিত হয়েছে।
পিরোজপুরের মঠবাড়িয়া উপজেলা ও পৌর ভূমি অফিসে বুধবার (১৯ জানুয়ারী) দুপুরে বাংলাদেশ ভূমি অফিসার্স কল্যাণ সমিতি পিরোজপুর জেলা শাখা প্রেস কনফারেন্স এর আয়োজন করেন। এসময় বক্তব্য রাখেন, ভূমি অফিসার্স কল্যাণ সমিতি জেলা শাখার সভাপতি মো. ছাইয়েদুর রহমান, ইউনিয়ন ভূমি সহকারি কর্মকর্তা মো. খলিলুর রহমান, শ্যামল চন্দ্র পাল।
এসময় উপস্থিত ছিলেন, ইউনিয়ন ভূমি সহকারি কর্মকর্তা দেবাশীষ বিশ্বাস, মো. সাইফুল ইসলাম, মো. জিল্লুর রহমান, গোবিন্দ চন্দ্র সমদ্দার, খন্দকার মফিজুল ইসলাম, মো. কামাল হোসেন, উপ-সহকারি কর্মকর্তা মালতী রানী বৈরাগী, মো. জিয়াউল জলীল, রতন কুমার পাইক ও মো. শহিদুল ইসলাম।

স্টাফ রিপোর্টার : পিরোজপুরের মঠবাড়িয়ায় জমি সংক্রান্ত বিরোধে বসত ঘরে হামলা চালিয়ে ব্যাপক ভাংচুর করেছে প্রতিপক্ষরা। এসময় বাঁধা দিতে গেলে প্রতিপক্ষ রহিম হাওলাদার ও তার দলবল মোসাঃ বেগম (৬৫) নামের এক বৃদ্ধাকে পিটিয়ে ডান হাত ভেঙ্গে দেয় ও তার সৌদি প্রবাসী পুত্র সাইদুল হাওলাদার (৪০) কে কুপিয়ে গুরুতর জখম করেছে। শনিবার (১৫ জানুয়ারী) সকালে উপজেলার খায়ের ঘটিচোরা গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। স্থানীয়রা ৯৯৯-এ কল দিলে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি শান্ত করে। পরে স্বজনার আহত বেগম ও তার ছেলে সাইদুলকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেন। গুরুতর আহত বেগমকে উন্নত চিকিৎসার জন্য কর্তব্যরত চিকিৎসক বরিশাল শেবাচিমে প্রেরণ করেন।
আহত বেগম জানান, তাদের পূর্ব পুরুষ থেকে ভোগদখলীয় জমি দীর্ঘদিন ধরে একই বংশের রহিম উদ্দিন হাওলাদারের পুত্র রফিক ও তার ভাই ফজেল অবৈধভাবে জোর পূর্বক দখলের চেষ্টা চালিয়ে আসছিল। এর ধারাবাহিকতায় শনিবার সকালে রফিকের নেতৃত্বে তার ছেলে জাকির ও ফজলের দুই ছেলে সুমন ও সোহাগসহ প্রায় ২০/২৫ জনের একটি দল নিয়ে বসত বাড়িতে হামলা চালায়। এসময় বাঁধা দিতে গেলে তাদের পিটিয়ে ও কুপিয়ে গুরুতর জখম করে।
অভিযুক্ত সোহাগ দাবী করেন, তার প্রতিপক্ষরা তাকেও পিটিয়ে আহত করে।
মঠবাড়িয়া থানার অফিসার ইনচার্জ মুহা. নূরুল ইসলাম বাদল জনান, খরব পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে পাঠানো হয়েছে। এঘটনায় লিখিত অভিযোগ পেলে তদন্ত পূর্বক আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

স্টাফ রিপোর্টার: পিরোজপুরের মঠবাড়িয়ায় গত ইউপি নির্বাচনী প্রচারণায় উপজেলার ২নং ধানীসাফা ইউনিয়নে আ’লীগ মনোনীত প্রার্থীর কর্মী যুবলীগ নেতা মিজানুর রহমান বিপ্লব (৪০) এর হাতের কবজি কাঁটার চাঞ্চল্যকর মামলার এজাহার নামীয় আসামী গ্রেপ্তার করেছে থানা পুলিশ। গাজীপুরের টঙ্গী শহরের পশ্চিম থানা পুলিশের সহযোগীতায় বুধবার (১২ জানুয়ারী সকালে স্থানীয় একটি বাসা থেকে পলাতক আসামী ছাত্রলীগ নেতা ফয়সাল বেপারী (২২) কে গ্রেপ্তার করে। গ্রেপÍারের পর ফয়সালকে বৃহস্পতিবার ভোররাতে পুলিশ থানায় হাজির করে। গ্রেপ্তারকৃত ফয়সাল উপজেলার তেতুলবাড়িয়া গ্রামের দুলাল বেপারীর ছেলে।
পুলিশ এ মামলায় এখন পর্যন্ত ১০ জন আসামীকে গ্রেপ্তার করেছে। মামলা সূত্রে জানা যায়, ধানীসাফা ইউনিয়ন যুবলীগের সহ-সভাপতি মিজানুর রহমান বিপ্লব গত ২২ ডিসেম্বর’২১ রাত পৌনে ১০ টার দিকে ধানীসাফা ইউপি নির্বাচনে আ’লীগ প্রার্থী হারুন অর রশিদ তালুকদারের নৌকা মার্কার স্টীকার নিয়ে আলগী বাজারের মসজিদের সামনে যান। ঘটনাস্থলে পৌছামাত্র পূর্ব পরিকল্পনা অনুযায়ী স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী রফিকুল ইসলাম (রফিক প্রফেসর) এর সমর্থকরা তাকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে এলোপাতারী কুপিয়ে গুরুতর জখম করে পালিয়ে যায়। এতে তার বাম হাতের কব্জি এবং ডান হাতের একটি আঙ্গুল প্রায় বিচ্ছিন্ন হয়ে যায়। এছাড়াও আহতের মাথা, পিঠ ও দুই হাতে ধারালো অস্ত্রের কোপে একাধিক জখম হয়। খবর পেয়ে থানা পুলিশ ঘটনাস্থল হতে গুরুতর আহত বিপ্লবকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যান। এসময় প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে কর্তব্যরত চিকিৎসক ওই রাতেই তাকে বরিশাল শেবাচিম হাসপাতালে প্রেরণ করেন।
এ ঘটনায় ২৩ ডিসেম্বর রাতে আহত বিপ্লব এর ভাই আ’লীগ নেতা মিল্টন বেপারী বাদি হয়ে মঠবাড়িয়া থানায় ৩২ জন নামীয় ও অজ্ঞাত ১৫ জনের বিরুদ্ধে এ মামলাটি দায়ের করেন।
তবে গ্রেপ্তারকৃত ফয়সাল বেপারী স্ত্রী কলেজ ছাত্রী শামিমা সুলতানা এ ঘটনায় তার স্বামী জড়িত নয় দাবী করে বলেন গ্রেপ্তারের পর ঢাকা থেকে আনার পথে পুলিশ পাশর্^বর্তী উপজেলার একটি নির্জন এলাকায় নিয়ে পুলিশ তার (ফয়সালের) দু’চোঁখ বেঁধে অমানুষিক নির্যাতন করেছে। এমনকি বৃহস্পতিবার সকালে ফয়সালের সাথে তাদেরকে দেখা করতেও দেয়া হয়নি এবং আমাদের না জানিয়ে আহত ফয়সালকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসা করায়।
এ মামলার তদন্তকারি কর্মকর্তা এস.আই সোহেল স্বজনদের নির্যাতনের এ অভিযোগ অস্বীকার করেছেন।
মঠবাড়িয়া থানার অফিসার ইনচার্জ মুহা. নূরুল ইসলাম বাদল বলেন, স্বজনরা ফয়সালের সাথে দেখা করতে না পারায় এ অভিযোগ করেছে। তিনি আরও বলেন- গ্রেপ্তারকৃত ফয়সাল বেপারীকে বৃহস্পতিবার দুপুরের আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে এবং মামলার অন্যান্য আসামী গ্রেপ্তার পুলিশী অভিযান অব্যহত আছে।

স্টাফ রিপোর্টার: মঠবাড়িয়ায় ডাকাতি করতে গিয়ে দস্যুদের চিনতে পারায় ফাতিমা বেগম (৪৫) নামের এক দুবাই প্রবাসির স্ত্রী তিন’ সন্তানের জননীকে কুপিয়ে জখম করেছে সংঘবদ্ধ দল। পুলিশ সোমবার (১০ জানুয়ারী) দুপুরে এ ঘটনায় জড়িত মনির হোসেন (৩০) ও শাহাদাৎ (২৯) নামের দুইজনকে গ্রেপ্তার করে আদলতে সোপর্দ করেছে।
শনিবার গভীর রাতে হারজি নলবুনিয়া গ্রামে সিঁদ কেটে প্রবাসীর বসতঘরে প্রবেশ করে দেশীয় অস্ত্রের মুখে পরিবারের লোকজনকে জিম্মি করে স্বর্ণালংকার ও নগদ টাকা ছিনিয়ে নেয়ার সময় এ ঘটনা ঘটে। গুরুতর জখম প্রবাসির স্ত্রী ফাতিমা বেগম গত দু’দিন ধরে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন অবস্থায় রয়েছেন। সে ঐ গ্রামের দুবাই প্রবাসি মো. জামাল বাদশার স্ত্রী ও যুবসংহতির কেন্দ্রীয় কমিটির দপ্তর সম্পাদক মো. মিরাজ ইসলামের মা।
এঘটনায় সোমবার সকালে আহত ওই প্রবাসির স্ত্রী ফাতিমা বেগমের ছোট ছেলে রিয়াজ বাদি হয়ে দুইজন নামীয় আরও ৫/৬ জন অজ্ঞাত আসামী করে থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন।


থানা সূত্রে জানা গেছে, শনিবার গভীররাতে উপজেলার দাঊদখালী ইউনিয়নের হারজি নলবুনিয়া গ্রামের দুবাই প্রবাসি মো. জামাল বাদশার বসত ঘরে সিঁদ কেটে একটি সংঘবদ্ধ দল প্রবেশ করে। পরে ঘরে ঘুমিয়ে থাকা পরিবারের লোকজনকে দেশীয় অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে আলমারি থেকে নগদ টাকা ও স্বর্ণালংকার ছিনিয়ে নেওয়ার চেস্টা চালায়। এসময় প্রবাসির স্ত্রী ফাতিমা বেগম মোবাইল ফোনের আলোতে একজনকে চিনে ফেলেন। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে সংঘবদ্ধ দস্যু দল ফাতিমা বেগমকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে উপর্যুপরি কুপিয়ে স্বর্ণালংকারসহ নগদ ২০ হাজার টাকা ছিনিয়ে নিয়ে পিছনের দরজা দিয়ে পালিয়ে যায়। পরে পুলিশ খবর পেয়ে ঐ রাতেই ঘটনায় জড়িত পার্শ^বর্তী একটি বাড়ি থেকে মনির ও শাহাদৎ নামের দুইজনকে গ্রেপ্তার করে।
মঠবাড়িয়া থানার অফিসার ইনচার্জ মুহা. নুরুল ইসলাম বাদল ঘটনায় দস্যুতার অভিযোগে মামলার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, এ ঘটনায় দুইজনকে গ্রেপ্তার করে আদালতে সোপর্দ করে রিমান্ডের আবেদন করা হয়েছে। তদন্ত করে এ ঘটনায় জড়িত অন্যদের গ্রেপ্তারের চেস্টা চলছে।

স্টাফ রিপোর্টার: মঠবাড়িয়ায় কাল বুধবার (৫ জানুয়ারি) পঞ্চম ধাপের ৪ ইউনিয়নে ভোট অনুষ্ঠিত হবে। ইউনিয়ন গুলো হচ্ছে ২নং ধানীসাফা, ৪ নং দাউদখালী, ৬ নং টিকিকিাটা ও ১১ নং বড়মাছুয়া। এরমধ্যে ধানীসাফা ও বড়মাছুয়ায় ইভিএম পদ্ধতিতে ভোট গ্রহণ হবে। তফসিল ঘোষণার পর থেকেই মারমুখী অবস্থানে রয়েছে। ইতোমধ্যে একাধিক সংঘর্ষে পুলিশসহ অন্তত অর্ধ শতাধিক আহত হয়েছেন। ঘটেছে কব্জি বিচ্ছিন্নের ঘটনাও। কয়েকটি ঘটনায় নিয়মিত মামলাও হয়েছে। ২০১৬ সালে এ উপজেলায় প্রশাসনের গুলিতে ৫ জন নিহত ও ৫৭ জন আহতও হয়েছিলেন। এ ভোট নিয়ে মানুষের মধ্যে ব্যাপক শংকা রয়েছে। তবে শংকার বিষয়টি প্রশাসন মানতে নারাজ।
৪টি ইউনিয়নে ৩৯ জন চেয়ারম্যান প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। এর মধ্যে স্বতন্ত্র প্রার্থী ২৯ জনই। চারটি ইউনিয়নে আওয়ামীলীগ মনোনীত নৌকা প্রতীকের ৪ জন। বিদ্রোহী ও স্বতন্ত্র প্রার্থী রয়েছে ২৯ জন। ইসলামী আন্দোলনের হাতপাখা প্রতীকের ৪ জন ছাড়াও দলীয় প্রতীকে জাতীয় পার্টি (এরশাদ) ০১ জন ও জাতীয় পার্টি (জেপি) থেকে ০১ জন প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেছেন।
চেয়ারম্যান পদে প্রার্থীরা হলেন- ২নং ধানীসাফা ইউনিয়নে বর্তমান চেয়ারম্যান হারুন অর রশিদ তালুকদার (নৌকা), স্বতন্ত্র মো. রফিকুল ইসলাম আকন (চশমা)। ৪নং দাউদখালী ইউনিয়নে বর্তমান চেয়ারম্যান ফজলুল হক খান রাহাত (নৌকা)। টিকিকাটা ইউনিয়নে বর্তমান চেয়ারম্যান রফিকুল ইসলাম রিপন জমাদ্দার (নৌকা) ও ১১নং বড়মাছুয়া ইউনিয়নে আয়েশা আক্তার মনি (নৌকা), বিদ্রোহী নাসির হোসেন হাওলাদার (চশমা)। এছাড়া দলীয় প্রতীকে ধানীসাফা ইউনিয়নে মোঃ ইউসুব আলী মুন্সী (হাতপাখা), দাউদখালী ইউনিয়নে সেকান্দার আলী খান (লাঙ্গল), আব্দুস শুক্কুর তালুকদার (বাইসাইকেল), মোঃ নূরুল ইসলাম মোল্লা (হাতপাখা), টিকিকাটা ইউনিয়নে মহিউদ্দিন আহমেদ লাবু মৃধা (হাতপাখা) এবং বড়মাছুয়া ইউনিয়নে জসিম হাওলাদার (হাতপাখা) প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।
অপরদিকে, স্বতন্ত্র প্রার্থীরা হলেন- ধানীসাফায় আবু জাফর হাওলাদার, আজিজুর রহমান, এএইচএম জামাল উদ্দিন, শহীদুল হক, ইউসুফ আলী সরদার, কাঞ্চন আলী শিকদার, মো. মামুন, সাইদুল মল্লিক ও মো. শামীম আহসান। দাউদখালীতে জাহিদুল আলম শামীম, মোঃ আইউব আলী খান, মোঃ জাহাঙ্গীর খান, একেএম মাহমুদুল হাসান তৌফিক ও মুছা তালুকদার। টিকিকাটায় সুফী জহির উদ্দীন, মোসাঃ সালমা, মো. শহিদুল ইসলাম, এনামুর রহমান ও মোঃ আব্দুল হালিম, কামরুজ্জামান স্বপন খান, দুলাল হাওলাদার, মাইনুল ইসলাম, মোঃ বশির আহমেদ, ছিদ্দিকুর রহমান, মোঃ আব্দুল লতিফ, মোঃ জামাল শিকদার, মোঃ হাবিবুর রহমান ও মো. নুরুল আমিন।

সরেজমিনে ভোটারদের সাথে কথা বলে জানা গেছে, ভোটারদের উপস্থিতিতে নির্বাচন অবাদ, সুষ্ঠ ও নিরপেক্ষ হলে ধানীসাফা ইউপিতে আ’লীগ মনোনীত হারুন অর রশিদ তালুকদার সাথে স্বতন্ত্র প্রার্থী রফিকুল ইসলাম, দাউদখালীতে বর্তমান চেয়ারম্যান ফজলুল হক খান রাহাতের সাথে জাতীয় পার্টির মনোনীত লাঙল প্রতীকের প্রার্থী সাবেক চেয়ারম্যান সেকান্দার আলী, টিকিকাটায় আ’লীগ মনোনীত রফিকুল ইসলাম রিপন জমাদ্দারের সাথে হাতপাখা মার্কার সাবেক চেয়ারম্যান মহিউদ্দিন আহমেদ লাবু মৃধা ও বড়মাছুয়াতে আ’লীগ মনোনীত আয়েশা আক্তার মনির সাথে বিদ্রোহী প্রার্থী বর্তমান চেয়ারম্যান নাসির হোসেন হাওলাদারের তুমুল প্রতিদ্বন্দ্বিতা হবে।
উপজেলা নির্বাচন অফিসার মোঃ নাজমুল হোসেন জানান, অবাধ, সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণভাবে নির্বাচন সম্পন্নের লক্ষ্যে সব ধরনের প্রস্ততি গ্রহণ করা হয়েছে।

Add
Add
Add
Add

ফেইসবুকে আমরা

পুরাতন খবর

SatSunMonTueWedThuFri
1234567
891011121314
15161718192021
22232425262728
293031    
       
    123
45678910
11121314151617
18192021222324
25262728293031
       
  12345
6789101112
13141516171819
20212223242526
27282930   
       
      1
2345678
9101112131415
16171819202122
23242526272829
3031     
    123
45678910
11121314151617
18192021222324
252627282930 
       
 123456
78910111213
14151617181920
21222324252627
28293031   
       
     12
3456789
10111213141516
17181920212223
24252627282930
31      
   1234
567891011
12131415161718
2627282930  
       
1234567
891011121314
15161718192021
22232425262728
293031    
       
     12
10111213141516
17181920212223
24252627282930
       
  12345
6789101112
2728293031  
       
  12345
6789101112
13141516171819
20212223242526
2728     
       
      1
2345678
9101112131415
16171819202122
23242526272829
3031     
   1234
567891011
12131415161718
262728293031 
       
78910111213
21222324252627
282930    
       
     12
3456789
17181920212223
24252627282930
31      
   1234
567891011
12131415161718
       
891011121314
15161718192021
22232425262728
293031    
       
    123
11121314151617
18192021222324
25262728293031
       
  12345
20212223242526
27282930   
       
      1
9101112131415
23242526272829
3031     
    123
45678910
11121314151617
18192021222324
252627282930 
       
 123456
78910111213
14151617181920
21222324252627
28293031   
       
1234567
15161718192021
22232425262728
29      
       
    123
45678910
11121314151617
18192021222324
25262728293031
       
 123456
14151617181920
21222324252627
28293031   
       
      1
9101112131415
16171819202122
30      
   1234
567891011
262728293031 
       
14151617181920
21222324252627
282930    
       
     12
3456789
10111213141516
24252627282930
31      
  12345
6789101112
13141516171819
20212223242526
2728293031  
       
1234567
15161718192021
22232425262728
2930     
       
    123
45678910
11121314151617
18192021222324
25262728293031
       
  12345
6789101112
13141516171819
27282930   
       
      1
2345678
9101112131415
16171819202122
3031     
      1
2345678
9101112131415
16171819202122
232425262728 
       
   1234
567891011
19202122232425
262728293031 
       
293031    
       
     12
10111213141516
17181920212223
       
  12345
6789101112
13141516171819
20212223242526
2728293031  
       
2930     
       
    123
18192021222324
       
28293031   
       
      1
16171819202122
30      
   1234
12131415161718
19202122232425
262728293031 
       
78910111213
282930    
       
     12
3456789
31      
     12
3456789
17181920212223
2425262728  
       
      1
23242526272829
3031     
 123456
78910111213
28293031