আজ ৯ই বৈশাখ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ | ২২শে এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ | সন্ধ্যা ৭:১১

  • বাংলা English
সদ্য :

☉ নব নির্বাচিত এমপিকে ৬ ইউপি চেয়ারম্যানের ফুলেল শুভেচ্ছা☉ প্রতিপক্ষের হামলায় নিহত জাহাঙ্গীরের দাফন সম্পন্ন \ ঘাতক সিরাজুল গ্রেপ্তার☉ মঠবাড়িয়ায় বাল্য বিয়ে রোধে তারুণ্যের কন্ঠ অনুষ্ঠিত☉ অবাধ ও সুষ্ঠ নির্বাচন বানচালকারীদের কোন ছাড় নয়☉ বখাটে গ্রেপ্তার ও শাস্তির দাবিতে বড়মাছুয়ায় শিক্ষার্থী ও অভিভাবকদের মানববন্ধন☉ মঠবাড়িয়া-বড়মাছুয়া সড়কে কার্পেটিং কাজে আবারও নিম্নমানের সামগ্রী ব্যবহার : পিচ-পাথর নিয়ে স্থানীয়দের ক্ষোভ☉ বিশিষ্ট শিক্ষানুরাগী আবদুর রশিদ মানিক মিঞা’র দাফন সম্পন্ন☉ ছাত্রলীগ নেতা সোহেলের নিঃশর্ত মুক্তি ও মামলা প্রতাহারের দাবিতে মানববন্ধন☉ মঠবাড়িয়ায় থানার ওসি প্রত্যাহার☉ ১৮ মামলার আসামী ফল সোহেলসহ গ্রেপ্তারকৃত-১২জন জেল হাজতে

বেপরোয়া বনফুল গাড়ীর চাপায় দুই গরু ব্যবসায়ী নিহত ॥ আহত-৩

বেপরোয়া বনফুল গাড়ীর চাপায় দুই গরু ব্যবসায়ী নিহত ॥ আহত-৩

স্টাফ রিপোর্টার: পিরোজপুরের মঠবাড়িয়ায় ঢাকা থেকে পাথরঘাটাগামী বনফুল পরিবহনের চাপায় শনিবার (২ জুলাই) দুপুরে দুই গরু ব্যবসায়ী নিহত ও তিনজন আহত হয়েছেন। নিহতরা হলেন উপজেলার উত্তর সোনাখালী গ্রামের আঃ আজিজ সিকদারের পুত্র হিরু সিকদার (৫০) এবং একই গ্রামের নয়া মিয়া ফকিরের পুত্র জাহাঙ্গীর ফকির (৫৩)। এছাড়া আহতরা হলেন ওই গ্রামের বাবুল হাওলাদারের পুত্র শাহিন হাওলাদার (৩৫), আঃ রশিদ মাতুব্বরের পুত্র ইউনুচ মাতুব্বর (৫৮) ও গরু বহনকারী ট্রলি গাড়ির চালক হিরু মীর (৩০)।
আহত সূত্রে জানা গেছে, পবিত্র ঈদ উল আযহা উপলক্ষে গরুর মালিক শাহিন ও ইউনুচ আজ শনিবার গভীর রাতে ২ জন শ্রমিক নিয়ে দুইটি ট্রলি গাড়ি যোগে ২৬টি গরু বিক্রির জন্য পাশর্^বর্তী ভান্ডারিয়া পৌর বাজারে যায়। সকাল সাড়ে নয়টায় গরু বিক্রি শেষে মঠবাড়িয়ায় ফেরার পথে তুষখালী হাওলাদার ফিলিং স্টেশনের সম্মুখ সড়কে পৌঁছামাত্র বেপরোয়া গতিতে আসা ঢাকা থেকে পাথরঘাটাগামী যাত্রীবাহী বনফুল পরিবহন (ঢাকা মেট্টে-ব-১৪-২৭৯০৭৬) একটি ট্রলি গাড়িকে পিছন থেকে ধাক্কা দেয়। এতে ট্রলি গাড়িটি দুমড়ে মুচড়ে খাদে পড়ে যায়। এ সময় ঘটনাস্থলে ২জন নিহত ও ৩ জন আহত হন।
স্থানীয়রা তাদের উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসলে কর্তব্যরত চিকিৎসক শাবলীন আক্তার হিরু ও জাহাঙ্গীরকে মৃত ঘোষণা করেন এবং আহতদের উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেন। নিহত জাহাঙ্গীরের স্ত্রী চার সন্তানের জননী মনোয়ারা বেগম (৪০) জানান- রাত তিনটার দিকে তার স্বামী জাহাঙ্গীর বাড়ি থেকে বের হয়ে প্রতিবেশী শাহিনের গরু নিয়ে ভান্ডারিয়ার উদ্দ্যেশ্যে চলে যায়। ্পরে দুপুরে লোক মুখে তার মৃত্যুর খবর পাই। কান্না জড়িত কন্ঠে বলেন, পরিবারের একমাত্র উপার্জণকারীকে হারিয়ে আমি সন্তানদের নিয়ে কোথায় যাব? কে ধরবে আমার সংসারের হাল।
প্রত্যক্ষদর্শী সাইফুল ইসলাম জানান, শনিবার সকালে তারা ৫ বন্ধু ইজিবাইক যোগে ভান্ডারিয়ার হরিণপালা ইকোপার্কে যাচ্ছিলেন। এসময় বনফুল গাড়ির চাপায় গরু বেপারীদের রাস্তায় পড়ে থাকতে দেখে তারা উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসেন।
মঠবাড়িয়া থানার অফিসার ইনচার্জ মুহা. নূরুল ইসলাম বাদল জানান, এঘটনায় ঘাতক বাসটিকে জব্দ করা হয়েছে। তবে ড্রাইভারসহ গাড়ির হেলপার ও সুপারভাইজার পলাতক রয়েছে।

Comments

comments

আরও পড়ুন

নব নির্বাচিত এমপিকে ৬ ইউপি চেয়ারম্যানের ফুলেল শুভেচ্ছা
নব নির্বাচিত এমপিকে ৬ ইউপি চেয়ারম্যানের ফুলেল শুভেচ্ছা
নব নির্বাচিত এমপিকে ৬ ইউপি চেয়ারম্যানের ফুলেল শুভেচ্ছা
প্রতিপক্ষের হামলায় নিহত জাহাঙ্গীরের দাফন সম্পন্ন \ ঘাতক সিরাজুল গ্রেপ্তার
প্রতিপক্ষের হামলায় নিহত জাহাঙ্গীরের দাফন সম্পন্ন \ ঘাতক সিরাজুল গ্রেপ্তার
প্রতিপক্ষের হামলায় নিহত জাহাঙ্গীরের দাফন সম্পন্ন \ ঘাতক সিরাজুল গ্রেপ্তার
মঠবাড়িয়ায় বাল্য বিয়ে রোধে তারুণ্যের কন্ঠ অনুষ্ঠিত
মঠবাড়িয়ায় বাল্য বিয়ে রোধে তারুণ্যের কন্ঠ অনুষ্ঠিত
মঠবাড়িয়ায় বাল্য বিয়ে রোধে তারুণ্যের কন্ঠ অনুষ্ঠিত
অবাধ ও সুষ্ঠ নির্বাচন বানচালকারীদের কোন ছাড় নয়
অবাধ ও সুষ্ঠ নির্বাচন বানচালকারীদের কোন ছাড় নয়
অবাধ ও সুষ্ঠ নির্বাচন বানচালকারীদের কোন ছাড় নয়
বখাটে গ্রেপ্তার ও শাস্তির দাবিতে বড়মাছুয়ায় শিক্ষার্থী ও অভিভাবকদের মানববন্ধন
বখাটে গ্রেপ্তার ও শাস্তির দাবিতে বড়মাছুয়ায় শিক্ষার্থী ও অভিভাবকদের মানববন্ধন
বখাটে গ্রেপ্তার ও শাস্তির দাবিতে বড়মাছুয়ায় শিক্ষার্থী ও অভিভাবকদের মানববন্ধন
মঠবাড়িয়া-বড়মাছুয়া সড়কে কার্পেটিং কাজে আবারও নিম্নমানের সামগ্রী ব্যবহার : পিচ-পাথর নিয়ে স্থানীয়দের ক্ষোভ
মঠবাড়িয়া-বড়মাছুয়া সড়কে কার্পেটিং কাজে আবারও নিম্নমানের সামগ্রী ব্যবহার : পিচ-পাথর নিয়ে স্থানীয়দের ক্ষোভ
মঠবাড়িয়া-বড়মাছুয়া সড়কে কার্পেটিং কাজে আবারও নিম্নমানের সামগ্রী ব্যবহার : পিচ-পাথর নিয়ে স্থানীয়দের ক্ষোভ