আজ ১৬ই ফাল্গুন, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ | ২৯শে ফেব্রুয়ারি, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ | দুপুর ২:২২

  • বাংলা English
সদ্য :

☉ নব নির্বাচিত এমপিকে ৬ ইউপি চেয়ারম্যানের ফুলেল শুভেচ্ছা☉ প্রতিপক্ষের হামলায় নিহত জাহাঙ্গীরের দাফন সম্পন্ন \ ঘাতক সিরাজুল গ্রেপ্তার☉ মঠবাড়িয়ায় বাল্য বিয়ে রোধে তারুণ্যের কন্ঠ অনুষ্ঠিত☉ অবাধ ও সুষ্ঠ নির্বাচন বানচালকারীদের কোন ছাড় নয়☉ বখাটে গ্রেপ্তার ও শাস্তির দাবিতে বড়মাছুয়ায় শিক্ষার্থী ও অভিভাবকদের মানববন্ধন☉ মঠবাড়িয়া-বড়মাছুয়া সড়কে কার্পেটিং কাজে আবারও নিম্নমানের সামগ্রী ব্যবহার : পিচ-পাথর নিয়ে স্থানীয়দের ক্ষোভ☉ বিশিষ্ট শিক্ষানুরাগী আবদুর রশিদ মানিক মিঞা’র দাফন সম্পন্ন☉ ছাত্রলীগ নেতা সোহেলের নিঃশর্ত মুক্তি ও মামলা প্রতাহারের দাবিতে মানববন্ধন☉ মঠবাড়িয়ায় থানার ওসি প্রত্যাহার☉ ১৮ মামলার আসামী ফল সোহেলসহ গ্রেপ্তারকৃত-১২জন জেল হাজতে

উপ-সম্পাদকীয়— ভালো আছি- এই উচ্চারণ আজ শুধু সৌজন্য মাত্র

উপ-সম্পাদকীয়— ভালো আছি- এই উচ্চারণ আজ শুধু সৌজন্য মাত্র

রুবেল মিয়া নাহিদ: আমি ভালো আছি এ আমার সৌজন্য বোধের ব্যক্ত কথা,আস্তাকুরে চলা জীবনের মাঝেও সরব কণ্ঠের মিথ্যাশয়।
আনমনা হয়ে যাই, ভালো আছি কিনা এই প্রশ্ন কেউ করলে। ভালো থাকবো , ভালো থাকা যায় এমন আয়োজনের মধ্যে কি আছি। যিনি জানতে চাইছেন। আমি ভালো আছি কিনা আসলে তিনি কি ভালো আছেন নাকি আমার ভালো খারাপের সাথে নিজেকে মিশিয়ে নিতে চাইছেন। এই এখন যে সময়টাতে আছি, সেখানে তো তিনি, আমি একই অবস্থানে সমান্তরালেই অবস্থান করছি হয়তো।
বাজারেও আমাদের অবস্থা শোচনীয়। অসহায় ক্রেতা। পরিতৃপ্তি নিয়ে খাওয়ার উপায় নেই আমাদের। আম, দুধ, মাছ থেকে শুরু করে যে পণ্যতে হাত দিবো সেখানেই বিষের ভয়। বিষ নিয়ে জমজমাট বাণিজ্যিক মেলা।
সত্যিই আমরা এক জাদুর শহরে আছি। ভালো থাকার প্রলোভন আঁকা থাকলেও, লুকিয়ে আছে অসুখের মরণ জাল।
এমন কি ফল কিনতে গেলেও ফরমালিনের আতঙ্কে থাকি।এটা একটি তিকারক রাসায়নিক দ্রব্য তা জেনেও সবাই তা পান করছি। কোথায় নেই এই ফরমালিন? আম, কাঁঠাল, শাক-সবজি সবকিছুতে এমন কি মৌসুমী ফলমূলেও। আমরা এই খাবার গ্রহণ করার ফলে আমাদের শরীরে নানা রকম রোগ সৃষ্টি হচ্ছে। এমন কি ক্যান্সার ও হতে পারে। বিষের মিশ্রন কিংবা ভেজাল ছাড়া বাজারে কমই খাবার পাওয়া যায়। বাঁচতে হলে খেতে হবে, আর খেতে হলে বিষের সঙ্গে এক নিবিড় সম্পর্ক করতে হবে এটাই বাস্তবতা।
মাঝে মাঝে দেখা যায় ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযান এবং মিডিয়াতে রেস্টুরেন্টের অন্দর মহলের তরতাজা খবর। তিকারক রাসায়নিক দ্রব্য খাবারের সাথে মিলানোর ফলে আমাদের যে অসুখ হয়, সেখান থেকেও নিস্তার পাওয়ার উপায় নেই। তাও আবার ভেজাল ঔষুধ। ঔষুধে অসুখ মরে না। থচলতে সেখানেও উদ্বেগ যানজট, গনপিটুনি, যৌননিপীড়নের।
সবচেয়েও জটিল সমস্যা যানজট। জীবনযাত্রার মান ক্রমে আরো বেশি মাত্রায় দূর্ভোগ হয়ে উঠেছে। এটা নিয়ে অনেক বছর যাবত কথা হলেও এর সঠিক কোন সমাধান হচ্ছে না।
পৃথিবীর অনেক ধনী ও উন্নত দেশে যানজট আছে কিন্তু আমাদের দেশের যানজট সমস্যা দিন দিন সবাইকে ছাড়িয়ে যাচ্ছে।
মানুষের মনের বিশ্বাসহীনতা ও আস্থা হীনতার পাল্লা দিন দিন বেড়েই চলছে। হঠাৎ করে এমন সমাজ আমাদের সামনে এসে দাঁড়িয়েছে।
মূল্যবোধ, নৈতিকতা, অবক্ষয়, বিকৃতি শব্দগুলো বার বার সামনে আনছেন বিজ্ঞজনেরা। বিভিন্ন স্থানে ঘটছে গনপিটুনি। বিশ্বাসহীনতার মাঝে ঘটছে আর এক বিশ্বাস।
বলছি এক বড় ভাইয়ের কথা-
পোলা পাইন নিয়ে চিন্তায় আছি।
আমি- কেন কি হয়েছে?
বাচ্চাদের ধরে নিয়ে যাচ্ছে, ব্রিজে মাথা লাগবে।
আমি- এসব সত্যি না, গুজব। ব্রিজ বানাতে মাথা লাগে না।
কী যে বলো ছোট ভাই সবাই জানে আর তুমি জানো না।
এইসব গুজবের কারণে গণপিটুনিতে জীবন হারাতে হয়েছে অনেকের।
অপরদিকে পত্র-পত্রিকা খুলেই দেখা যায় যৌন নিপীড়নের খবর। দেশের বিভিন্ন স্থানে নারীরা শিকার হচ্ছেন যৌন নির্যাতনের। বিভিন্ন ভাবে এক জন নারী যৌন নির্যাতনের শিকার হচ্ছে-
-শারীরিক শক্তি প্রয়োগ করে বা জোর করে।
-লোভ দেখিয়ে বা ফাঁদে ফেলে।
-কারো সরলতার সুযোগ নিয়ে বা অসচেতনতার সুযোগ নিয়ে।
কেউ যেন যৌননিপীড়নের সুযোগ না নিতে পারে সেজন্য আমাদের সচেতন হওয়া দরকার।
অনেকে কাস রুম বাদ দিয়ে জড়িয়ে পড়ছে মাদকের আড্ডায়। বর্তমানে আমাদের শিা ব্যবস্থা কোচিং সেন্টারের হাতে বন্দি। এই হল আমাদের সমাজচিত্র। আমারা ভালো থাকি কী করে।
দুর্ণীতির কথা আর নাই বা বলি। দুর্ণীতির কারেন্ট জালে আটকে আছি আমরা সবাই। দুর্ণীতি এখন পুরোটাই প্রকাশ্য।
মাননীয় প্রধানমন্ত্রী নির্বাচনের প্রাক্কালে এবং নির্বাচন-পরবর্তী সময়ে অত্যন্ত জোরালোভাবে দুর্ণীতির বিরুদ্ধে শূন্য সহনশীলতার ঘোষণা দিয়েছিলেন। বাংলাদেশে দুর্ণীতিবাজদের ঠাঁই হবে না। এটির কার্যকর ব্যবহার, এটির প্রয়োগ এবং এটিকে কারো প্রতি ভয়, করুণা না করে বাস্তবায়ন করার যে অঙ্গীকার, সেটি থাকতে হবে। সেটির পদ্ধতি আবিষ্কার করতে হবে। এমন একটা পরিবেশ সৃষ্টি করতে হবে, দুর্ণীতি করলে যে শাস্তি পেতে হয়, সেটি নিশ্চিত করা। যারা দুর্ণীতি করবে, উচ্চ পর্যায়েরই হোক, যেই পর্যায়েরই হোক না কেন, যেন তারা আবার বিচারহীনতার সংস্কৃতি উপভোগ করবেন, সেটি যেন না হয়।
আমাদের স্কুলগামী সন্তানরাও জেনে গেছে রাজনৈতিক পরিচয় বহন করলে সাত খুন মাপ। কাসের যাওয়ার প্রয়োজন কী তাদের তো বড় ভাই আছে। এই হল আমাদের শিা ব্যবস্থা। এতো কিছু ভালোর মাঝে কী করে ভালো থাকা যায়? যায় কি?
এবার আসি ডেঙ্গু প্রসঙ্গে। ভুল ঔষধ, নকল ঔষধ নিয়ে দৌড়ঝাঁপ। সত্যি আমারা ডেঙ্গুর ভয়াবহ শিকারে পরিণত হচ্ছিলাম ক্রমশ। যাই হোক, আমারা আক্রান্ত হলাম, চিকিৎসা পাওয়ার অধিকার আছে। কিন্তু সেখানে ও দেখলাম কিছু হাসপাতালের চিকিৎসার হাটের পণ্য আমরা। পড়ে দেখলাম সরকারের হস্তেেপ চিকিৎসা খরচ কমানো হয়েছে। তাই ডেঙ্গুর প্রকোপ না কমা পর্যন্ত সবাইকে সচেতন থাকার আহ্বান জানাচ্ছি।
ডেঙ্গু মশা পরিষ্কার পানিতে ডিম পাড়ে। খেয়াল রাখতে হবে কোন খোলা পাত্রে, ফুলের টবে, টায়ার, এয়ারকুলারে যেন পানি জমে না থাকে। সুতরাং বাড়ির আশপাশ বেশ ভালো করে পরিষ্কার করতে হবে।পরিশেষে এতটুকুই বলা যায়, আমাদের সতর্কতা আর সচেতনতাই হতে পারে ডেঙ্গু থেকে দূরে থাকার প্রধান উপায়। মশা থেকে বাঁচতে শুধু অ্যারোসল আর কয়েলেই নয় নিয়মিত মশারি ব্যবহার করুন। বাড়ির চারপাশ পরিষ্কার রাখুন আর জ্বর হলে তা শুরুতেই গুরুত্ব দিন কারণ ডেঙ্গু জ্বর হলে প্লাটিলেটের সংখ্যা হঠাৎ করেই কমে যায় খুবই ভয়ানক ব্যাপার। সবার সুস্থতা কামনা করছি। ভালো থাকুন সুস্থ থাকুন! এই হল আমাদের সমাজ চিত্র। আমরা ভালো থাকি কি করে?


লেখকঃ মোঃ রুবেল মিয়া নাহিদ, সাধারণ সম্পাদক, প্যারেন্টস এজিং ফাউন্ডেশন

Comments

comments

আরও পড়ুন

নব নির্বাচিত এমপিকে ৬ ইউপি চেয়ারম্যানের ফুলেল শুভেচ্ছা
নব নির্বাচিত এমপিকে ৬ ইউপি চেয়ারম্যানের ফুলেল শুভেচ্ছা
নব নির্বাচিত এমপিকে ৬ ইউপি চেয়ারম্যানের ফুলেল শুভেচ্ছা
প্রতিপক্ষের হামলায় নিহত জাহাঙ্গীরের দাফন সম্পন্ন \ ঘাতক সিরাজুল গ্রেপ্তার
প্রতিপক্ষের হামলায় নিহত জাহাঙ্গীরের দাফন সম্পন্ন \ ঘাতক সিরাজুল গ্রেপ্তার
প্রতিপক্ষের হামলায় নিহত জাহাঙ্গীরের দাফন সম্পন্ন \ ঘাতক সিরাজুল গ্রেপ্তার
মঠবাড়িয়ায় বাল্য বিয়ে রোধে তারুণ্যের কন্ঠ অনুষ্ঠিত
মঠবাড়িয়ায় বাল্য বিয়ে রোধে তারুণ্যের কন্ঠ অনুষ্ঠিত
মঠবাড়িয়ায় বাল্য বিয়ে রোধে তারুণ্যের কন্ঠ অনুষ্ঠিত
অবাধ ও সুষ্ঠ নির্বাচন বানচালকারীদের কোন ছাড় নয়
অবাধ ও সুষ্ঠ নির্বাচন বানচালকারীদের কোন ছাড় নয়
অবাধ ও সুষ্ঠ নির্বাচন বানচালকারীদের কোন ছাড় নয়
বখাটে গ্রেপ্তার ও শাস্তির দাবিতে বড়মাছুয়ায় শিক্ষার্থী ও অভিভাবকদের মানববন্ধন
বখাটে গ্রেপ্তার ও শাস্তির দাবিতে বড়মাছুয়ায় শিক্ষার্থী ও অভিভাবকদের মানববন্ধন
বখাটে গ্রেপ্তার ও শাস্তির দাবিতে বড়মাছুয়ায় শিক্ষার্থী ও অভিভাবকদের মানববন্ধন
মঠবাড়িয়া-বড়মাছুয়া সড়কে কার্পেটিং কাজে আবারও নিম্নমানের সামগ্রী ব্যবহার : পিচ-পাথর নিয়ে স্থানীয়দের ক্ষোভ
মঠবাড়িয়া-বড়মাছুয়া সড়কে কার্পেটিং কাজে আবারও নিম্নমানের সামগ্রী ব্যবহার : পিচ-পাথর নিয়ে স্থানীয়দের ক্ষোভ
মঠবাড়িয়া-বড়মাছুয়া সড়কে কার্পেটিং কাজে আবারও নিম্নমানের সামগ্রী ব্যবহার : পিচ-পাথর নিয়ে স্থানীয়দের ক্ষোভ